ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেতা ইরফান খান (৫৪) মুম্বাইয়ের একটি হাসপাতালে মা’রা গেছেন। আজ বুধবার মুম্বাইয়ের কোকিলাবেন ধীরুভাই আম্বানি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মা’রা গেছেন বলে জানিয়েছে হিন্দুস্তান টাইমস পত্রিকা। স্ত্রী সুতপা ও দুই সন্তানকে রেখে চিরবিদায় নিলেন ভারতীয় চলচ্চিত্রের এই খ্যাতিমান অভিনেতা।

পড়ুন: শেষ বার্তায় যা বলেছিলেন ইরফান খান

এর আগে গত শনিবার ভোরে ভারতের জয়পুরে নিজের বাসভবনে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন এই অভিনেতার মা। দীর্ঘদিন ধরে বার্ধক্যজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন তার মা সাইদা বেগম। মৃ’ত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৫ বছর।

জানা যায়, ২০১৮ সালে নিউরোঅ্যান্ডোক্রাইন টিউমার ধরা পড়ে ইরফানের। এর পর এক বছর বিদেশে থেকে চিকিৎসা করিয়েছিলেন। মার্চ মাসে মুক্তি পায় ইরফানের ‘আংরেজি মিডিয়াম’ সিনেমা।

এই অভিনেতা কয়েক মাস ধরে ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করছিলেন। কয়েকমাস আগে টিউমারের চিকিৎসা শেষে লন্ডন থেকে মুম্বাইয়ে ফিরেছিলেন তিনি।

গত শনিবার মায়ের মৃ’ত্যুর পর হঠাৎ করে স্বাস্থ্যের অবনতি হওয়ায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরে মুম্বাইয়ের কোকিলাবেন ধীরুভাই আম্বানি হাসপাতালের আইসিইউতে রাখা হয়। আজ বুধবার সেখানেই তিনি মা’রা যান।

ইরফানের জন্ম রাজস্থানের জয়পুরে। তাঁর পরিবার এখনো সেখানেই থাকে। সেখান থেকেই দিল্লিতে ন্যাশনাল স্কুল অব ড্রামায় পড়তে আসেন।

এরপর পাকাপাকিভাবে যোগ দেন বলিউডে। বাংলাদেশের পরিচালক মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ‘ডুব’ ছবিতে অভিনয় করেছিলেন ইরফান খান।

২০১৮ সালে ইরফানের ‘কারওয়াঁ’ মুক্তি পেয়েছিল। তার আগে থেকেই তিনি নিউরোএন্ডোক্রাইন টিউমারে ভুগছিলেন। ‘কারওয়াঁ’র প্রচারেও ছিলেন না ইরফান। লন্ডনে গিয়ে চিকিৎসা করিয়ে খানিক সুস্থ হয়ে তিনি ‘আংরেজি মিডিয়াম’-এ কাজ করেন।

এক সাক্ষাৎকারে ইরফান বলছেন, ‘কম বয়সে আমি নাম, খ্যাতি, যশ, অর্থ চাইতাম। এখন মনে হয়, যে গল্পগুলো বলা দরকার সেগুলো বলি, প্রতিটি মুহূর্ত বাঁচি। তাতে ছবির ভবি’ষ্যৎ বদলাবে না।’

আরো পড়ুন: জীবনে জয়ী হতে গিয়ে মাঝে মাঝে অন্যের ভালবাসা ভুলে যাই: শেষ বার্তা

বড় হয়ে ইরফান খান প্রথমে ক্রিকেটার হওয়ার চেষ্টা করেছিলেন। তার পর ছোটখাট ব্যবসার চেষ্টা করলেও ব্যর্থ হন। প্রথমদিকে তাঁকে অনেক ক’ষ্ট করতে হয়েছে। তিনি প্রথমদিকে টিউশন করিয়ে এবং মানুষের বাসায় এসি ঠিক করে দিতেন।

মুম্বইয়ে আসার পর তিনি একে একে অভিনয় করলেন চাণৌক্য, ভারাত এক খোঁজ, সারা জাহা হামা’রা, বানেগী আপনে বাত, চন্দ্রকান্ত, শ্রীকান্ত, আনুগুঞ্জ, স্টার বেস্টসেলারস ও স্পার্স নামক টিভি সিরিয়ালে। এর অনেকগুলোই ছিল দূরদর্শন এবং স্টার প্লাসের মত বড় বড় টিভির সিরিয়াল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here