সময়ের কণ্ঠস্বর, সিলেট- পারিবাকির ক’লহ ও মৌখিক তালাকের জের ধরে স্বা’মীর পু’রুষাঙ্গ কে’টে দিয়েছেন এক স্ত্রী। গু’রুতর আ’হত অবস্থায় ওই স্বা’মীকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সোমবার রাতে সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ উপজে’লার উত্তর কুশিয়ারা ইউনিয়নের দ্বিনপুরে এ ঘ’টনা ঘটে। মঙ্গলবার দুপুরে বি’ষয়টি জানাজানি হয়। এ নিয়ে এলাকায় তোলপাড় চলছে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, প্রায় ছয় বছর আগে দক্ষিণ সুরমা উপজে’লার মোগ’লাবাজার থানার খলাগাঁও গ্রামের এক না’রীর স’ঙ্গে উত্তর কুশিয়ারা ইউনিয়নের দ্বিনপুর গ্রামের এক যুবকের বিয়ে হয়। তাদের দুটি স’ন্তান রয়েছে।

বেশ কিছুদিন ধরে স্বা’মী-স্ত্রীর মধ্যে ক’লহ চলছিল। সোমবার দুপুরে ঝ’গড়ার একপর্যায়ে স্ত্রী’কে মৌখিক তালাক দেন স্বা’মী। খবর পেয়ে শ্বশুরবাড়ির লোকজন বি’ষয়টি মীমাংসা করতে মে’য়ের জামাইয়ের বাড়িতে যান। রাত বেশি হয়ে যাওয়ায় বি’ষয়টি অমীমাংসিত রেখে স্ত্রী’কে আলাদা ঘরে থাকার নির্দেশ দেয় গ্রামের মুরব্বিরা।

পরে কৌশলে ভোররাতে ব্লেড দিয়ে স্বা’মীর পু’রুষাঙ্গ কে’টে দেন স্ত্রী। এ সময় স্বা’মীর চি’ৎকারে পরিবারের লোকজন এসে র’ক্তাক্ত অবস্থায় উ’দ্ধার করে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

ফেঞ্চুগঞ্জ থানার অফিসার ই’নচার্জ (ওসি) আবুল বাসার মোহাম্ম’দ বদরুজ্জামান জানান, লি’ঙ্গ কর্তনের চেষ্টার অভিযোগ পেয়েছি। অ’ভিযুক্ত স্ত্রী’কে থানায় আনা হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here