আন্তর্জাতিক ডেস্ক : নিজের বাড়িতে টয়লেট নেই। তাই মঙ্গলবার সকালে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে গিয়েছিলেন বাড়ির সামনের খোলা মাঠে। সেখানে গিয়েই স’ন্তান জ’ন্ম’দেন ২৬ বছর ব’য়সী এক তরুণী। ব্য’থায় ও আ’তঙ্কে সেখানেই জ্ঞান হা’রিয়ে ফে’লেন তিনি।

জ্ঞান আসার পর দেখতে পান সদ্য জ’ন্মে নেওয়া শি’শুটি সেখানে আর নেই। কোনো বন্য জন্তু সেই বাচ্চাকে নিয়ে গেছে বলেই আ’শঙ্কা করছে তার পরিবার। এমন ভ’য়ঙ্কর ঘ’টনা ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশের এক গ্রামে। চম্বল নামক এলাকার সেই গ্রামে নেই কোনো হাসপাতালও।

ভারতের স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, বুধবার রাত পর্যন্ত জ’ন্ম নেওয়া ওই পুত্র স’ন্তানের কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। শিল্পী চৌহান নামের ওই তরুণী প্রায় কয়েক ঘণ্টা জ্ঞান হা’রিয়ে সেখানেই পড়েছিলেন।

পরিবারের লোকেরা তাঁকে খোঁজাখুঁজি শুরুর পর ওই এলাকায় গিয়ে দেখা মেলে তার। মাটিতেই র’ক্তে ভেসে যাচ্ছিল তার শ’রীর। পরে তাকে পাশের এলাকার একটি বেস’রকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এখন তার শা’রীরিক অবস্থা স্থিতিশীল।

শিল্পী চৌহান বলেন, আমি টয়লেট গিয়েছিলাম মাঠে। সেখানেই আমার প্রসব বেদনা শুরু হয়। আমি এক পুত্র স’ন্তানের জ’ন্ম দিই। এর কিছুক্ষণের মধ্যেই আমি জ্ঞান হারাই। প্রায় ২-৩ ঘণ্টা পর আমার পরিবারের সদস্যরা আমাকে খুঁজে পান। কিন্তু আমার স’ন্তান সেখানে ছিল না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here