দেশের প্রধান পর্যটন শহর কক্সবাজারকে ‘ব্যয়বহুল’ হিসেবে ঘো’ষণা করেছে স’রকার। এতে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যসহ বিভিন্ন জিনিসপত্রের দাম বেড়ে যাবে।

আর এ কারণেই শহরের স’রকারি চাকরিজীবীদের বাড়িভাড়াসহ বিভিন্ন ধ’রনের সুযোগ-সুবিধা বাড়ানোর ঘো’ষণা দেওয়া হয়েছে। স’ম্প্রতি মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এ সংক্রা’ন্ত প্রজ্ঞাপন জা’রি করা হয়।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, কক্সবাজার শহর বা পৌর এলাকার নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের মূল্যবৃ’দ্ধিসহ বাড়িভাড়া, যানবাহনের ভাড়া, খাদ্য, পোশাকসামগ্রীসহ অন্যান্য ভোগ্যপণ্যের দাম বিবেচনায় কক্সবাজার পৌর এলাকাকে ব্যয়বহুল হিসেবে ঘো’ষণা করা হয়েছে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সূত্রে জা’না গেছে, জে’লা প্রশাসক সম্মেলনে কক্সবাজারের জে’লা প্রশাসকের (ডিসি) দেয়া প্রস্তাবের ভিত্তিতেই মূলত এই ব্যব’স্থা নেয়া হয়েছে।

ওই সম্মেলনে কক্সবাজারের ডিসি বলেছিলেন, বাস্তুচ্যুত হয়ে মিয়ানমা’র থেকে রো’হিঙ্গারা কক্সবাজারের আসার পর সেখানে দেশি-বিদেশি অসংখ্য বেস’রকারি সংস্থা কাজ শুরু করে। এছাড়াও বিভিন্ন সংস্থা সেখানে কাজ করছে। এর ফলে কক্সবাজারে থাকা-খাওয়ার খরচ বেড়ে গেছে।

স’রকারি ক’র্মকর্তা-ক’র্মচারীদের ও’পর আর্থিক চা’প পড়ছে। এ বিবেচনায় কক্সবাজার শহরকে ব্যয়বহুল শহর ঘো’ষণার প্রস্তাব করেন তিনি। তখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ বি’ষয়ে নীতিগত সম্মতি দেন। পরে অন্যান্য প্রক্রিয়া শেষ করে এখন প্রজ্ঞাপন জা’রি হয়েছে। এখন অর্থ বিভাগ আর্থিক বি’ষয়গুলো নির্ধারণ করবে।

বর্তমানে দেশের সাত বিভাগীয় শহর ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা, রাজশাহী, সিলেট, বরিশাল ও রংপুর স’রকারি হিসাবে ব্যয়বহুল। এছাড়াও ঢাকার নারায়ণগঞ্জ জে’লা, গাজীপুর সিটি করপোরেশন এলাকা এবং সাভার পৌর এলাকাকে স’রকারি হিসাবে ব্যয়বহুল এলাকা। তবে ময়মনসিংহ বিভাগ হলেও এখনো ব্যয়বহুল শহর হিসেবে ঘো’ষণা হয়নি।

প্রসঙ্গত, ঢাকাসহ দেশের ব্যয়বহুল এলাকাগুলোয় স’রকারি চাকরিজীবীরা সাধারণত মূল বেতনের ৫০ শতাংশ বাড়িভাড়া পেয়ে থাকেন। এখন থেকে কক্সবাজারের চাকরিজীবীরাও তা পাবেন।

বর্তমানে এই হার ৪৫ শতাংশ। এ ছাড়া টিএ-ডিএসহ অন্যান্য সুবিধাও বাড়বে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here