ডাকা হয়েছিলো চাকরির ইন্টারভিউয়ের জন্য।একপর্যায়ে কোমল পানীয় পান করিয়ে করা হয় অজ্ঞান। পরে কয়েক বন্ধু মিলে চা’লায় অ,মা’নসিক নি’র্যাতন।

রাজধানীর শ্যামলীতে বেস’রকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর সাথে ঘটে এমন ব’র্বর ঘটনা। পুলিশের অ’ভিযানে আ’টক হয়েছে একজন।

পার্টটাইম চাকরীর ইন্টারভিউ দিতে এই বাড়িতেই ডাকা হয় বেস’রকারি একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক তরুনীকে।

শ্যামলীর তিন নম্বর রোডের গলির মুখে আসতেই অফিসের একজন পরিচয়ে তরুণীকে নিয়ে যাওয়া হয় বাড়ির পাঁচ তলার একটি ফ্ল্যাটে।

ইন্টারভিউয়ের ফাঁকেই তাকে এক গ্লাস কোমল পানীয় অফার করা হয়। বেশ ক্লান্ত ও ঘর্মাক্ত অবস্থায় মেয়েটি যখন গ্লাসে চুমুক দেয় এর পরেই চোখ জুড়ে নেমে আসে ঘোর অন্ধকার।

এরপর টেনে-হিচরে নিয়ে যাওয়া হয় পাশের একটি রুমে। প্শ‌বিক খেলায় মেতে ওঠে তিন জন।কোন মতে বাসায় ফিরলেও তখনও ঘোর কাটেনি। মঙ্গলবার ঘটনা ঘটলেও বোধ ফিরে তার একদিন পর।

মানুসিক য,ন্ত্রনা নিয়ে কি করবে মেয়েটি তখনও বুঝতে পারে না। অবশেষে একটি সিদ্ধান্তে উপনীত হয়। আর যাই হোক ছাড় দেবে না একজনকেও।

বন্ধু আর পুলিশের একটি ইউনিটকে নিয়ে যায় সেই বাসায়। আ’টকও করা হয় একজনকে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসায় সবকিছুই স্বীকার করেছে সে। বাকিদের ধরতে অ’ভিযান চালাচ্ছে পুলিশ

এরপর টেনে-হিচরে নিয়ে যাওয়া হয় পাশের একটি রুমে। প্শ‌বিক খেলায় মেতে ওঠে তিন জন।কোন মতে বাসায় ফিরলেও তখনও ঘোর কাটেনি।

মঙ্গলবার ঘটনা ঘটলেও বোধ ফিরে তার একদিন পর। মানুসিক য,ন্ত্রনা নিয়ে কি করবে মেয়েটি তখনও বুঝতে পারে না। অবশেষে একটি সিদ্ধান্তে উপনীত হয়। আর যাই হোক ছাড় দেবে না একজনকেও।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here