যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়াভিত্তিক একটি বায়োফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি ক’রোনাভা’ইরাসেের (কোভিড-১৯) প্রতিষেধক নিয়ে সুখবর দিয়েছে।

‘সোরেন্টো থেরাপিউটিকস’ নামের কোম্পানিটি দাবি করেছে, তারা ক’রোনা প্রতিরোধী অ্যান্টিবডি বা প্রতিষেধক আবি’ষ্কার করেছে। এটা ‘শতভাগ কার্যকর’ এবং রো’গীকে চারদিনেই ক’রোনামুক্ত করবে।

ফক্সনিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শুক্রবার (১৫ মে) সান দিয়োগোর কোম্পানি সোরেন্টো থেরাপিউটিকস আনুষ্ঠানিকভাবে এ বি’ষয়ে বিস্তারিত তুলে ধরবে।

তারা জানিয়েছে, ক’রোনার টিকা বা ভ্যাকসিন বাজারে আসার আগেই এই অ্যান্টিবডির মাধ্যমে চিকিৎসা শুরু হয়ে যেতে পারে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সং’ক্র’মণজনিত রো’গের চিকিৎসায় অ্যান্টিবডির ব্যবহার শতবছর ধরে চলে আসছে। যদিও এর কার্যকারিতা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই গেছে।

শঙ্কা-স’ন্দেহ সত্ত্বেও সোরেন্টো থেরোপিউটিকসের কর্মকর্তারা বিশ্বাস করেন, ক’রোনার সফল চিকিৎসার চাবিকাঠি পেয়ে গেছেন তারা।

তাদের দাবি, গবেষণার অংশ হিসেবে তারা গত দশকে শত কোটি অ্যান্টিবডি সংগ্রহ করেছেন এবং সেগুলোর স্ক্রিনিংও করেছেন। এর মধ্যেই ডজনখানেকের মতো এমন অ্যান্টিবডি রয়েছে, যারা কার্যত ক’রোনাভা’ইরাসেকে মানুষের শরীরে গেঁড়ে বসা থেকে ঠেকিয়ে দিতে পারে।

সোরেন্টো থেরাপিউটিকস’র প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ডা. হেনরি জি বলেন, ক’রোনা থেকে মুক্তির উপায় এসেছে, তা আমরা জো’র দিয়ে বলতে চাই।

এমন সমাধান এসেছে যা ১০০ ভাগ কার্যকর। এসটিআই-১৪৯৯ নামে এই অ্যান্টিবডি যদি আপনার শরীরে দেয়া হয়, তাহলে সামাজিক দূরত্বও আপনাকে বজায় রাখতে হবে না। আপনি নির্ভ’য়ে সবার সঙ্গে মিশে যেতে পারবেন।

গত ডিসেম্বরে চীন থেকে ছড়ানো কোভিড-১৯ গোটা বিশ্বকে বি’পর্যস্ত করে তুলেছে। ভাই’রাসে বিশ্বজুড়ে আ’ক্রান্তের সংখ্যা এখন পর্যন্ত ৪৫ লাখ ছাড়িয়েছে। মৃ’তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে তিন লাখের বেশি।

তবে ১৭ লাখের বেশি রো’গী ইতোমধ্যে সুস্থ হয়েছেন। খোদ যুক্তরাষ্ট্রেই আ’ক্রান্তের সংখ্যা সাড়ে ১৪ লাখের বেশি এবং মৃ’তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৮৬ হাজার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here