একটি মেইল সার্ভার কীভাবে কাজ করে?মেইল সার্ভার নিয়ে বিস্তারিত আর্টিকেল

ইমেইল কি এটা বর্তমান সময়ে আর নতুন করে বলতে হবে না।আপনি অবশ্যই স্মার্ট ফোন ব্যাবহার করে এই লেখা পরছেন?তাহলে আপনি প্রথম যেদিন আপনার স্মার্ট ফোন কিনেছেন সেদিনের কথা মনে করার চেষ্টা করুন।ফোন কেনার পরেই এটি ব্যাবহার করার জন্য আপনার একটি ইমেইল এড্রেস এর প্রয়োজন হয়েছিল।কি মনে পরেছে?যদি মনে না হয়ে থাকে তাহলে আমরা প্রথমেই ইমেইল সম্পর্কে সংক্ষেপে বিস্তারিত জানবো এবং এর পরই মূল আলোচনায় চলে যাব।

ইমেইল হল ইন্টারনেটে যোগাযোগ করার সবচাইতে সহজ মাধ্যম এটি সবচেয়ে জনপ্রিয় মাধ্যম।আর এমন একজনও ইন্টারনেট ব্যাবহারকারি পাবেন না যাদের একটি ইমেইল এড্রেস নাই।কারন বর্তমান সময়ে একটি স্মার্ট ফোন ব্যাবহার করতেও ইমেইল এর প্রয়োজন পরে।আর কেউ যদি ইমেইল এড্রেস ব্যাবহার না করেও থাকে তবুও তার একটি ইমেইল এড্রেস আছে।আপনি আপনার ইমেইল অ্যাকাউন্টে প্রবেশ করে যেকারও ইমেইল এড্রেস টাইপ করে আপনার যেকোনো বার্তা এবং ফাইল অ্যাটাচ করে মাত্র কয়েক সেকেন্ড এর ভেতর আপনার কাঙ্কখিত বার্তাটি পেরন করতে পারেন।এই ইমেইল পাঠাতে একটি নির্দিষ্ট সার্ভার ব্যাবহার করে আপনাকে বার্তা প্রেরন করতে হয়।আর এই ইমেইল সার্ভার কীভাবে কাজ করে এটাই আমাদের আজকের আলোচনার বিষয়।

প্রথমে আমরা জানবো কীভাবে মেইল সেন্ট হয়।আপনি যদি কাউকে ইমেইল পাঠাতে চান তাহলে আপনাকে প্রথমে আপনার ইমেইলে লগিন করতে হবে।এটা হতে পারে জিমেইল,ইয়াহু অথবা অন্য কোন ইমেইল প্রভাইডার।লগিন করার পর আপনাকে নতুন ইমেইল সেন্ট করার অপশনে ক্লিক করতে হবে।এর পর আপনার বন্ধুর ইমেইল এড্রেস লিখতে হবে।যা অনেক টা এই রকম user@companyname.com এখানে ইউজার হল আপনার বন্ধুর ইমেইল এর ইউজার নাম এবং কোম্পানি নাম হল ইমেইল প্রভাইডার এর নাম।যেমনঃ আপনার বন্ধুর ইমেইল যদি গুগল এর জিমেইল হয় তাহলে আপনার বন্ধুর ইমেইল হবে এই রকম, user@gmail.com অথবা আপনার বন্ধুর ইমেইল যদি হয় ইয়াহু তবে আপনার বন্ধুর ইমেইল এড্রেস হবে user@yahoo.com।

আপনি যখন কোন ইমেইল কোন মেইল বেবহারকারিকে সেন্ট করেন তখন আপনার ইমেইল টি একটি সিম্পল মেইল ট্রান্সফার প্রোটোকলের মাধ্যমে আউটগোয়িং সার্ভারে চলে যায়।আসুন এই বিষয়কে আরও সহজ ভাবে উপথাপন করা যাক।আপনি জীবনে এক বার হলেও পোস্ট অফিসে চিঠি পোস্ট করেছেন?তার জন্য আপনাকে অবশ্যই পোস্ট অফিসের চিঠির বক্সে চিঠি ফেলতে হয়েছে।আর আপনি চিঠি ফেলার পর পোস্ট অফিসের লোক আপনার চিঠি সংগ্রহ করে নির্দিষ্ট ঠিকানায় পৌঁছে দেয়।সিম্পল মেইল ট্রান্সফার প্রোটোকল ঠিক এই পোস্ট অফিসদের মত কাজ করে।

সিম্পল মেইল ট্রান্সফার প্রোটোকল আপনার ইমেইল টি পাওার পর এটি যাচায় করবে যে আপনি আসলে কথায় ইমেইলটি সেন্ট করতে চাইছেন।এখানে আপনার ডোমেইন নামের প্রয়োজন পরে।কিন্তু সিম্পল মেইল ট্রান্সফার প্রোটোকল ডোমেইন নাম বুঝে না আর এই সময় সিম্পল মেইল ট্রান্সফার প্রোটোকল ডোমেইন নাম সিস্টেম এর সাথে যুক্ত হয়।আর ডোমেইন নাম সিস্টেম এর সাথে যুক্ত হতে সিম্পল মেইল ট্রান্সফার প্রোটোকল ডিএনএস এর সাহায্য নেয়।পৃথিবীর প্রতিটা ডোমেইন এর আলাদা আলাদা আইপি এড্রেস থাকে যা দ্বারা নির্দিষ্ট ডোমেইন কে খুজে বের করা হয়।আর এই কাজ টি সম্পন্ন করে ডিএনএস সিস্টেম।এবার সিম্পল মেইল ট্রান্সফার প্রোটোকল যেহেতু জেনে গেছে ইমেইল টি কোন ডোমেইনে সেন্ট হবে এবং যেহেতু সে ডোমেইন এর সাথে ডিএনএস সিস্টেম এর মাধ্যমে যুক্ত হয়েছে,সেহেতু সিম্পল মেইল ট্রান্সফার প্রোটোকল এখন ডিএনএস সিস্টেম কে ব্যাবহার করে ইমেইলটি নির্দিষ্ট সার্ভারে সেন্ট করে দিবে।এবং সেই সার্ভার নির্দিষ্ট বেবহারকারির ইমেইল অ্যাকাউন্ট এর ইনবক্সে সেন্ট করে দিবে।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *